শব্দের যোগ্যতার বিকাশ Last updated: 5 months ago

১. ইনি আমার বৈবাহিক’ – এখানে বৈবাহিক শব্দটির দ্বারা। শব্দের অর্থ সংকুচিত হয়েছে। বৈবাহিক শব্দের দ্বারা ‘ছেলে।

বা মেয়ের শ্বশুর সম্পর্কিত ব্যক্তিকে বোঝানো হচ্ছে।

২. “মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে তত্ত্ব পাঠানো হয়েছে” – এখানে তত্ত্ব শব্দটির দ্বারা শব্দের অর্থান্তর প্রাপ্ত হয়েছে। এ বাক্যে তত্ত্ব শব্দটি সংবাদ’ অর্থে নয়, ‘উপঢৌকন’ অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে।

৩. “শ্রীরামকৃষ্ণ পরমহংস” – এখানে পরমহংস শব্দটির দ্বারা শব্দের উৎকর্ষ প্রাপ্ত হয়েছে। এখানে পরমহংস শব্দের সাথে হাঁসের কোনো সম্পর্ক নেই, পরমহংস শব্দটির অর্থ  সন্ন্যাসী।

৪. “জ্যাঠামি করো না” – এখানে জ্যাঠামি শব্দটির দ্বারা শব্দের অপকর্ষ প্রাপ্ত হয়েছে। এখানে জ্যাঠামি শব্দের সাথে জ্যাঠার (পিতার বড়ো ভাই) কোনো প্রকার সম্পর্ক নেই, জ্যাঠামি শব্দটির অর্থ ধৃষ্টতা।

৫. শব্দের ব্যবহার কত প্রকার? = ২ প্রকার (বাচ্যার্থ ও লক্ষ্যার্থ)।

৬. বাচ্যার্থ কী? = যে সকল শব্দ তাদের আভিধানিক অর্থে ব্যবহৃত হয় তাকে বাচ্যার্থ বলে।

৭. লক্ষ্যার্থ কী? = যে সকল শব্দ তাদের আভিধানিক অর্থে ব্যবহৃত না হয়ে অন্য কোনো অর্থ প্রকাশ করে তাকে। লক্ষ্যার্থ বলে।

৮. বাগধারা গঠনে বিভিন্ন পদের ব্যবহারকে বলে = রীতি প্রয়োগ

৯. ম্যাও ধরা” অর্থ কী? = দায়িত্ব নেওয়া।

১০. “গোঁ ধরা” অর্থ কী? = একগুঁয়েমি করা।

১১. “গলা ধরা” অর্থ কী? = কণ্ঠরুদ্ধ হওয়া।

১২. “গা সওয়া” অর্থ কী? = অভ্যস্ত হওয়া।

১৩. “গায়ে সওয়া” অর্থ কী? = দেহে সহ্য হওয়া।

১৪. “গা লাগা” অর্থ কী? = মনোযোগ দেওয়া।

১৫. “গায়ে লাগা” অর্থ কী? = অনুভূত হওয়া।

১৬. “পায়ে পড়া” অর্থ কী? = ক্ষমা প্রার্থনা করা।

১৭. “পায় পড়া” অর্থ কী? = খোশামুদে।

১৮. “হাত আসা” অর্থ কী? = অভ্যস্ত হওয়া।

১৯. “হাতে আসা” অর্থ কী? = আয়ত্ত হওয়া।

২০. “মাথা ব্যথা” অর্থ কী? = আগ্রহ।

২১. “মাথা দেওয়া” অর্থ কী? = দায়িত্ব গ্রহণ।

২২. “মাথা খাওয়া” অর্থ কী? = শপথ করা।

২৩. “মুখ ছোটা” অর্থ কী? = গালি গালাজ করা।

২৪. “মুখ করা” অর্থ কী? = গালমন্দ করা।

২৫. “মুখ তোলা” অর্থ কী? = অনুগ্রহ করা।

২৬. “কাঁচা কথা” অর্থ কী? = গুরুত্বহীন কথা।

২৭. “কাঁচা খাতা” অর্থ কী? = খসড়া।


এই পোস্ট সহায়ক ছিল?

1 out of 1 Marked as Helpfull !